কুকুর শুধু মানুষের ভালো বন্ধুই হয় না, দীর্ঘায়ুর জন্যও ভূমিকা রাখে বলে নতুন এক গবেষণায় উঠে এসেছে। এই চারপেয়ে যেমন মানসিক স্বস্তি দেয়, তেমনি একাকিত্ব ও উদ্বেগ হ্রাসে কার্যকর ভূমিকা রাখে—এ কথা সবারই জানা।

নতুন তথ্য বলছে, মানুষের শারীরিক স্বাস্থ্যের জন্যও ইতিবাচক ভূমিকা রাখে কুকুর। এসংক্রান্ত গবেষণা নিবন্ধ ‘সার্কুলেশন : কার্ডিওভাসকুলার কোয়ালিটি অ্যান্ড আউটকামস’ সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছে। ৩৮ লাখ রোগীর তথ্য বিশ্লেষণ করে এ গবেষণা করা হয়েছে। এতে গবেষকরা দেখতে পান, কুকুর পুষলে মানুষের হৃদযন্ত্র ভালো থাকে। বিশেষত হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের ঝুঁকি বেশ কমিয়ে ফেলে।

আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের বিজ্ঞানীরা বলছেন, সাধারণ মানুষের তুলনায় কুকুর পোষ্যকারীর মৃত্যুঝুঁকি ২৪ শতাংশ কম। তা ছাড়া হার্ট অ্যাটাকের পর মৃত্যুর ঘটনা কমে প্রায় ৬৫ শতাংশ। আর হৃদেরাগজনিত সার্বিক মৃত্যুর ঝুঁকি কমে ৩১ শতাংশ। একই ধরনের ফল মিলেছে সুইডেনের আপসালা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায়।

এ গবেষণায় দেখা গেছে, কুকুর পোষ্যকারীর হৃদেরাগজনিত মৃত্যুর ঝুঁকি কমে ৩৩ শতাংশ।

আমেরিকান হার্ট ফাউন্ডেশনের বিজ্ঞানী গ্লেন এন লেভিন বলেন, দুই গবেষণাই বলছে, কুকুর মালিকের হৃদেরাগ ও অন্যান্য কারণে মৃত্যুর ঝুঁকি অপেক্ষাকৃত কম। বিপুলসংখ্যক রোগীর তথ্য বিশ্লেষণ অন্তত তা-ই বলছে।

সূত্র : দ্য টেলিগ্রাফ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here