শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলতে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন অব্যাহত

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ১ জুন সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে শাহবাগে মানববন্ধন করেছে শিক্ষার্থীরা। এছাড়াও বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাব এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে পৃথক মানববন্ধন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

মানবন্ধনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা বলেন, করোনাকালে শিক্ষার যে ক্ষতি হয়েছে তা পুষিয়ে নেয়া সম্ভব প্রায় অসম্ভব। ফলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে স্থগিত পরীক্ষার দ্রুত রুটিন প্রকাশ ও জাতীয় বাজেটে বিশেষ বরাদ্দের দাবি জানান তারা। মানববন্ধন শেষে শিক্ষামন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পাঠান এসব শিক্ষার্থীরা।

স্মারক লিপিতে বলা হয়, শিক্ষা জাতির মেরুদণ্ড, জাতির সার্বিক উন্নয়নের চাবিকাঠি। করোনার প্রাদুর্ভাবে গত বছর ১৭ মার্চ থেকে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। গত প্রায় দেড় বছর ধরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার ফলে পুরো শিক্ষাব্যবস্থা ধ্বংসের সম্মুখীন। শিক্ষার্থীরা শিক্ষাজীবন শেষ করতে না পারায় চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমাও পেরিয়ে যাচ্ছে। শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যৎ অনিশ্চয়তায় জানিয়ে বলা হয়, অনেকে উচ্চশিক্ষার জন্য আবেদন করতে পারছে না। নানাবিধ কারণে ৬০-৭০ শতাংশ শিক্ষার্থী অনলাইন শিক্ষার সঙ্গে যুক্ত হতে পারেনি। ফলে অনলাইনে পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত উচ্চশিক্ষার ধারণার পরিপন্থী। উপরন্তু দীর্ঘ সময় শিক্ষা কার্যক্রমের বাইরে থাকায় শিক্ষার্থীদের হতাশা, মাদকাসক্ত হওয়া, নানাবিধ অন্যায়ে জড়িয়ে পড়া ও আত্মহত্যার প্রবণতা বৃদ্ধি পেয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here