স্মার্ট কার্ড দেয়া হবে জেনে দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করছিলেন জাহেদুল আলম নামে ২২ বছরের এক যুবক। দীর্ঘ সময় অপেক্ষার পর যখন হাতে এলো কার্ডটি তখন খুশির বদলে বিরক্তির ছাপ ফুটে উঠলো তার মুখে। এর কারণ, কার্ডে তার ছবির পরিবর্তে কোন এক অপরিচিত রমনীর ছবি দেওয়া হয়েছে।

শনিবার (২২ জুন) দুপুরে চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার ১নং ফরহাদাবাদ ইউনিয়নের ফরহাদাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় ভূক্তভোগী জাহেদুল আলম উক্ত ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের অধিবাসী।

তিনি অভিযোগ করেন, “২০১৫ সালে জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়ার জন্য নিবন্ধন করি। এর দুই বছরেরও অধিক সময় পর ২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে জাতীয় পরিচয়পত্রে আমার ছবির স্থলে এক মহিলার ছবি আসে। পরে ওই বছরের ১৮ নভেম্বর মাসের সোনালী ব্যাংকে ২৫৩ টাকা জমা দিয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসে সংশোধনের জন্য আবেদন করি”।

“কিন্তু আজ (শনিবার) ফরহাদাবাদ উচ্চ বিদ্যালয়ে দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষার পর পাওয়া স্মার্ট কার্ডে আগের একই ভুলটি বিরাজমান। এখন কিভাবে কি করবো বুঝতে পারছিনা।

এদিকে লাইনে স্মার্ট কার্ডের জন্য লাইনে অপেক্ষমান শারমিন আক্তার নামে এক গৃহবধু ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, “আমার স্বামীকে দেওয়া স্মার্ট কার্ডে তার পিতামাতার নামে নামে ভুল রয়েছে।”

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো.আরিফুল ইসলাম বলেন, “এ রকমের প্রায় ৮৫ জন ভোটারের স্মার্ট কার্ডে ভুলে একজনের ছবির স্থলে অন্যজনের ছবি সংযোজন করা হয়েছিল। যা আমি নিজে গিয়ে ঢাকা থেকে সংশোধন করে নিয়ে এসেছি। তবে গুটি কয়েকজন ভোটারের এমন সমস্যা এখনও থাকতে পারে। তাই তাদের জন্য আমাদের পরামর্শ হল, তারা যেন তাদের আগের সাধারণ জাতীয় পরিচয়পত্র জমা না দেন এবং বিষয়টি আমাদেরকে অবহিত করেন। তাহলে আমরা বিষয়টি সুরাহা করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবো”।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here