বিদেশ থেকে এসে দেশের মানুষদের বিপদে ফেলছেন: আমিন খান

করোনা সংক্রমণের ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। দেশের জনপ্রিয় ব্যক্তিবর্গের অনেকেই দেশের মানুষের উদ্দেশ্যে সচেতনতা বহায় রাখার আহ্বান করছেন শুরু থেকেই। বাংলাদেশের চলচ্চিত্র জগতের পরিচিত মুখ আমিন খানও পিছিয়ে নেই।

দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে আমিন খান সবার প্রতি আহ্বান জানিয়ে যা বলেছেন তা নিচে তুলে ধরা হলোঃ

অসচেতনতা বিপদে ফেলতে পারে। সচেতন হওয়ার সময় এসেছে, মুখ বুঝে সহ্য করার সময় নেই। বাঙালি জাতি অনেক বড় বড় বিপদ ওভারকাম করতে পেরেছে। আশা করছি, একটু সচেতন হলে এই বিপদ থেকেও রক্ষা পাবো-মহামারি করোনা ভাইরাসের প্রকোপ নিয়ে ফেসবুক লাইভে এসব কথা বলেন চিত্রনায়ক আমিন খান। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে করোনার প্রকোপ বেড়েই চলেছে। এই আতঙ্ক বিরাজ করছে দেশেও। বিষয়টি উল্লেখ করে এ চিত্রনায়ক বলেন, আজকে আমাদের বাংলাদেশ এমন একটা অবস্থার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে আমি মনে করছি আমারও কিছু বলা উচিত দেশের মানুষের জন্য, দেশের কল্যাণের জন্য। খুবই একটি খারাপ পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছি।

একদিন এই পরিস্থিতি আমরা ওভারকাম করতে পারবো ইনশাআল্লাহ। সবাইকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে আমিন খান বলেন, পরিস্থিতি যেন খারাপ না হয়, সেজন্য সবার উচিত একটু সচেতন হওয়া। আমরা যেন কেউই আগামী ২০ দিন খুব বেশি জরুরি না হলে ঘর থেকে বের না হই।

পরিবারের সবাইকে নিয়ে একসঙ্গে ঘরে থাকি। আপনার আমার কারণে অনেকে হয়তো বা করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন। আমরা একঘণ্টা পর পর সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নেব। করোনাকে রুখতে চাইলে এই কাজগুলো করতে হবে। যখনই হাঁচি দেবো অবশ্যই টিস্যু পেপার দিয়ে ঢেকে নেবো অথবা কনুই দিয়ে ঢেকে নেবো। কারো সঙ্গে যেন করমর্দন না করি।

বিদেশ ফেরত ব্যক্তিদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে আমিন খান বলেন, যারা বিদেশ থেকে এসেছেন, তারা অনেকেই ঘুরে বেড়াচ্ছেন বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যাচ্ছেন। বাংলাদেশের সাধারণ মানুষদের বিপদে ফেলছেন। আপনারা ১৫ দিন ঘরের মধ্যে থাকলে আপনার এলাকার মানুষ নিরাপদ থাকবে। আমি অনুরোধ করবো, আপনার আশেপাশের যারা বিদেশ থেকে এসেছেন তাদের প্রতি লক্ষ্য রাখুন, তারা কেউ যেন ঘরের বাইরে বের না হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here