মহামারির কারণে যতবার বন্ধ হয়েছিল পবিত্র হজ

বিশ্বব্যাপী প্রাণঘাতী মহামারি করোনাভাইরাসের প্রকোপের কারণে এ বছর হজ বাতিলের মতো সিদ্ধান্ত নেয়ার আশঙ্কা করছে পুরো মুসলিম বিশ্ব। ইতিমধ্যেই বিশ্বের মুসলিম দেশগুলোকে এ বছর হজ নিয়ে কোন সিদ্ধান্ত নিতে এখনই নিষেধ করেছেন সৌদি আরবের হজ ও ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রী মুহম্মদ সালেহ বিন তাহের বান্তেন।

মুহম্মদ সালেহ বিন তাহের বান্তেন বলেন, সৌদি আরব নাগরিকদের সুরক্ষার ব্যাপারে কোনও আপোস করবে না। তাই করোনা পরিস্থিতি সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা না পাওয়া পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে হজের বিষয়ে আমরা কোনও চুক্তি স্বাক্ষর না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

এবারে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে প্রাণহাণীর শঙ্কায় হজ বাতিলের সম্ভাবনা থাকলেও ইসলামের ইতিহাসে হজ বাতিল এবারই প্রথম নয়। এর আগেও ছোঁয়াছে মহামারিতে প্রাণহানীর শঙ্কায় হজ বাতিলের মতো ঘটনার সম্মুখীন হতে হয়েছিল মুসলিমদের। এমন তথ্যই দিয়েছে তুরস্ক ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম টিআরটি ওয়ার্ল্ড।

১৮১৪ সালে হেজাজ অঞ্চলে মরণঘাতী রোগ প্লেগের বিস্তার লাভ করায়ে সেবছর হজ বাতিলের মতো সিদ্ধান্ত নিয়েছিল মক্কা কর্তৃপক্ষ। সেবারে প্লেগ আক্রান্ত হয়ে প্রায় ৮ হাজার লোক মৃত্যুবরণ করেছিল।

এরপর, ১৮৩৭ সালে আবার হজের সময় এ মহামারি দেখা দেয়ায় সে বছরও হজের আনুষ্ঠানিকতা বতিল করে মক্কা কর্তৃপক্ষ। থেমে থেমে এই মহামারি স্থায়ী হয় ১৮৯২ সাল পর্যন্ত।

এসময় মিশর থেকে ডাক্তারদের হেজাজে পাঠানো হয় হজ যাত্রায় আসা তীর্থযাত্রীদের চিকিৎসা ও কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করার জন্য।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here