ভারত বিশ্বে ধর্ষণের রাজধানী হিসেবে পরিচিত: রাহুল গান্ধী

আজ (৭ ডিসেম্বর) ভারতে সরকারের বিরোধী দল কংগ্রেসের নেতা এমপি রাহুল গান্ধী ভারতে নারীদের বিরুদ্ধে সহিংসতা বৃদ্ধি পাওয়ায় ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেছেন। কংগ্রেসের এই নেতা বলেন, ভারত বিশ্বে ধর্ষণের রাজধানী হিসেবে পরিচিত। বিদেশিরা জিজ্ঞাসা করছেন, কেন ভারত তার মেয়ে এবং বোনদের সুরক্ষা দিতে অক্ষম।

নরেন্দ্র মোদিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, সহিংসতায় বিশ্বাসী মানুষেরা এখন দেশ চালাচ্ছেন।

উত্তরপ্রদেশের উন্নাওয়ে ধর্ষণের মামলার শুনানিতে যাওয়ার পথে অভিযুক্তদের মারপিট ও আগুনে ২৩ বছর বয়সী এক তরুণী ও তেলেঙ্গানায় ধর্ষণের পর এক চিকিৎসক তরুণীকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় ভারতজুড়ে যখন তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে সেই সময় এমন মন্তব্য করলেন কংগ্রেসের এই নেতা।

কেরালার ওয়াইয়নদে দলীয় এক সমাবেশে রাহুল গান্ধী বলেন, আমাদের প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামোগুলো ভেঙে যাওয়ার কারণ রয়েছে। এর একটি কারণ হলো, মানুষ আইন নিজেদের হাতে তুলে নিচ্ছেন। আর যে মানুষটি এই দেশ পরিচালনা করছেন; তিনি নিজে সহিংসতা এবং নির্বিচার ক্ষমতায় বিশ্বাস করেন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির পাশাপাশি কেন্দ্রের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল বিজেপিরও তীব্র সমালোচনা করেন। উন্নাওয়ে পৃথক একটি ধর্ষণের মামলায় বিজেপির এমএলএ কুলদ্বীপ সিং সেনগার অভিযুক্ত। রাহুল গান্ধী বলেন, উত্তরপ্রদেশে বিজেপির একজন এমএলএ ধর্ষণের মামলায় অভিযুক্ত এবং প্রধানমন্ত্রী এব্যাপারে একটি কথাও বলছেন না।

তেলেঙ্গানায় গত সপ্তাহে এক পশু চিকিৎসক তরুণীকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় শুক্রবার অভিযুক্তদের নিয়ে তদন্তে নামে রাজ্য পুলিশ। এ সময় ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর পর অভিযুক্ত চার ধর্ষক পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ গুলি চালায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যায় তারা। তবে পুলিশের এই দাবির সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন দেশটির অনেকেই।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here