৯২ রানে ৬ উইকেট হারানো ভারত সপ্তম উইকেটে পেল ১১৬ রানের অসাধারণ জুটি। রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি, লোকেশ রাহুলদের ব্যর্থ হওয়ার দিনে রবীন্দ্র জাদেজা খেললেন অনবদ্য এক ইনিংস। তাকে সঙ্গ দিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। তারপরও শেষ হাসি হাসতে পারল না ভারত। জাদেজার ঝড় থামিয়ে, ধোনিকে বিদায় করে ফাইনালের টিকিট পেল নিউজিল্যান্ড।

বৃষ্টির কারণে বন্ধ হয়ে যাওয়া ভারত ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনাল রিজার্ভ ডেতে অর্থাৎ বুধবার (১০ জুলাই) ফের মাঠে গড়ানোর পর দেখা মিলল টানটান উত্তেজনার একটি ম্যাচ। ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে বিরাট কোহলিদের ১৮ রানে হারিয়ে ফাইনালে নিজেদের জায়গা নিশ্চিত করল কেন উইলিয়ামসনের দল।

এদিকে ভারত-নিউজিল্যান্ড ম্যাচটি বাংলাদেশ থেকে হাজার হাজার কিলোমিটার দূরে অনুষ্ঠিত হলেও, বহুল আলোচিত এ ম্যাচ নিয়ে এ দেশের সমর্থকদের আগ্রহের কমতি ছিলো না। মাঠে বসে না পারলেও বড় পর্দার সামনে বসে উপভোগ করেছেন বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল ম্যাচ।

তবে নিকট অতীতেও যে ভারতের বিপুল সংখ্যক সমর্থক ছিলো বাংলাদেশে, তাতে হঠাৎ টানাপোড়েন? তাই বেশিরভাগ সমর্থকই ছিলো টিম নিউজিল্যান্ডের। ২০১৫ সালের কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচের বিতর্কিত আম্পায়ারিংয়ের কষ্টটা এখনো ভুলতে পারছেন না টাইগার সমর্থকরা।

বাংলাদেশি সমর্থকরা বলেন, ভারত ষড়যন্ত্র করে বাংলাদেশ দলকে হারিয়েছিল। নিউজিল্যান্ড মতো দলের সাথে তারা পেরে ওঠেনি। তাদের জন্য পরাজয়টাই কাম্য ছিল।

২৪০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৪৯.৩ ওভারে ২২১ রান করে ভারত। আর ১৮ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে নিউজিল্যান্ড।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here