বোর্ডের সাথে কোন রকম কথা বার্তা না বলেই ক্রিকেটারদের হুট করেই এমন ধর্মঘটে রীতিমত ক্ষেপেছেন বিসিবি বস নাজমুল হাসান পাপন। আজ দুপুরে বিসিবি আয়োজিত এক সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে নাজমুল হাসান ক্রিকেটারদের প্রতি এক রকম কষ্ট থেকেই অনেক ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

ক্রিকেটারদের তাঁরা কোন ধরনের সুযোগ সুবিধা এবং তাঁদের সাথে বোর্ডের কেমন সম্পর্ক বোঝাতে গিয়ে সাকিব আল হাসানের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘সাকিবের সঙ্গে সবশেষ যখন দেখা, তখনো সে বলেছে, আমি বিশ্বকাপে ভালো খেললাম আমার টাকা দিয়ে দেন! বললাম, ঠিক আছে আপার সঙ্গে কথা বলে অনুষ্ঠান করে দিই। তুমি ভালো খেলেছ।’

বর্তমানে বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে সবার উপরের ক্যাটাগরিতে থাকা ক্রিকেটারদের বেতন ৪ লাখ টাকা। কিভাবে এই বেতন দেড় লাখ থেকে চার লাখ করা হয়েছে তার পেছনের গল্পও বলেন নাজমুল হাসান। তিনি বলেন, ‘আমরা যখন (পরিচালনা পর্ষদে) এসেছি, ওদের বেতন ছিল দেড় লাখ টাকা। এটা বাড়িয়ে করলাম আড়াই লাখ টাকা। বেশি দিন আগের কথা না, শ্রীলঙ্কায় সিরিজ খেলে আসছে; মাশরাফি আর তামিম দুজন আমাকে লাউঞ্জে বলছে, বেতনটা বাড়িয়ে দেন না। বললাম, কত আছে? বলল, আড়াই লাখ। ওরা বলল, আরেকটু বাড়ায়ে দেন। একজন বলল, বেশি করে বাড়িয়ে দেন। আরেকজন বলল, না, ৫০ হাজার টাকা বাড়িয়ে দেন। সেটি হলে হয় তিন লাখ। ওখানে বসেই করলাম ৪ লাখ। বললাম, তোমাদের বেতন এখন থেকে ৪ লাখ টাকা। ওদের সঙ্গে এটাই আমাদের সম্পর্ক। কখনো ওরা বলতে পারবে আমাদের কাছে যেটা চেয়েছে, সেটা দিইনি!’

ভালো খেললেই বিসিবি সভাপতি কোটি টাকার ঘোষণা দেন। নাজমুল হাসান একটা হিসাব করে বলেন,  ‘বোনাসের অঙ্ক ২০ কোটি ছাড়িয়েছে, ২৪ কোটি টাকা ওদের বোনাস দিয়েছি এই ১৫ খেলোয়াড়কে। শুধুই পারফরম্যান্সের জন্য। এটা কেউ দেয় নাকি?’

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here