বন্ধ হচ্ছে আসামের সব সরকারি মাদ্রাসা

ভারতের আসাম রাজ্যে সরকার পরিচালিত সব মাদ্রাসা বন্ধ করে দেওয়া হবে। গত বৃহস্পতিবার আসামের শিক্ষামন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, রাজ্য সরকার আসামের সমস্ত সরকারি মাদরাসা বন্ধ করে দেবে। কারণ, জনসাধারণের অর্থ দিয়ে ধর্মীয় শিক্ষা দেয়ার বিষয়টি গ্রহণযোগ্য নয়। আগামী মাসে এই সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে। মাদরাসা বন্ধ করা হলেও সরকারি ‘টোল’গুলো (হিন্দু ধর্ম শিক্ষা দেয়ার প্রতিষ্ঠান) বন্ধ করার বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি।

এর আগে বিজেপি সরকার আসার পর থেকে রাজ্যে বেশকিছু দিন ধরেই সরকারি আনুকূল্যে চলা মাদ্রাসাগুলো বন্ধ করা দেওয়ার বিষয়টি বিবেচিত হচ্ছে। আর রাজ্যে এই ধরণের মাদ্রাসার সংখ্যা ৬১৮ টি। বেসরকারি পরিচালনাধীন মাদ্রাসার সংখ্যা ৯০০। রাজ্যে সরকার পরিচালিত টোল আছে শতাধিক। কিন্তু সেগুলো বন্ধ করা হচ্ছে না। সরকার পরিচালিত মাদ্রাসার জন্য বাৎসরিক খরচ হয় আনুমানিক ৪ কোটি টাকা। টোল পরিচালনায় খরচ ১ কোটি।

সরকারি এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন এআইইউডিএফ নেতা বদরুদ্দিন আজমল। শুক্রবার তিনি বলেন, সরকার এই সিদ্ধান্ত নিতে পারে না। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো অর্ধ শতাব্দী ধরে রাজ্যে বহু মানুষকে শিক্ষাদান করে চলেছে। সরকার যদি বন্ধ করে দেয়, তা হলে সেটা অন্যায় হবে। ভোটে জিতে আমরা ফের সেগুলো চালু করব।

আসাম বিধানসভার ভোট আগামী বছর। তার আগে এই ধরনের সিদ্ধান্ত গ্রহণের মধ্য দিয়ে শাসকদল বিজেপি ‘ধর্মীয় মেরুকরণের’ চেষ্টা চালাচ্ছে বলে বিরোধীদের অভিযোগ। ইতিমধ্যেই মাদ্রাসাগুলোয় কর্মরত ১৪৮ জন অস্থায়ী শিক্ষককে অন্য বিদ্যালয়ে বদলি করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here