প্রিমিয়ার লিগে এখনও ‘অনিশ্চিত’ মাশরাফি

শেষ ম্যাচের ফল যাই হোক, শেষ হয়ে গেছে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার ওয়ানডে সিরিজ। শুক্রবার রাতে তৃতীয় ওয়ানডের পর জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটাররাসহ প্রায় ২০০ ক্রিকেটার, তিন-চার ডজন কোচিং স্টাফ ও ১২ ক্লাবের কর্মকর্তা এবং সাপোর্টিং স্টাফরা ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন ঢাকার ক্লাব ক্রিকেট নিয়ে।

সব কিছু ঠিক থাকলে আর মাত্র দু’দিন পর ৩১ মে শুরু হবে ২০২১ সালের প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের এবারের লিগ খেলবেন জাতীয় দলের সব ক্রিকেটার। প্রিমিয়ার লিগ শেষে জাতীয় দল যাবে জিম্বাবুয়ে সফরে।

লঙ্কানদের বিপক্ষে প্রথম সিরিজ বিজয়ের মিশন শেষ করে ‘পঞ্চ পান্ডব’-এর চার সদস্য সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহীম আর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও নিজেদের তৈরি করছেন প্রিমিয়ার লিগের জন্য। আজ (শনিবার) তাদের বায়ো-বাবলের মধ্যে নিজ নিজ হোটেলে ওঠার কথা। কাল থেকে ক্লাব প্র্যাকটিসেও অংশ নেবেন সব তারকা।

যদিও প্রায় দলের প্রস্তুতি শুরু হয়েছে ক’দিন আগেই। জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের বাদে বাকিরা নিজ নিজ ক্লাবের অনুশীলনে ঠিকই অংশ নিচ্ছেন। কিন্তু কোথাও দেখা মেলেনি শীর্ষ তারকা মাশরাফি বিন মর্তুজার।

মাত্র ৪৮ ঘন্টা পর পর্দা উঠবে প্রিমিয়ার লিগের। মাঠে গিয়ে দেখার সুযোগ না পেলেও সাধারণ ক্রিকেট অনুরাগী এবং তারকাদের ভক্তরা অধীর আগ্রহে ক্ষণ গুনছেন। স্বাভাবিকভাবেই মাশরাফি-ভক্তরা খুঁজে ফিরছেন তাদের প্রিয় তারকাকে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম আর ব্যক্তিগতভাবে মিডিয়ার কাউকে পেলে ভক্তদের একটাই জিজ্ঞাসা- ভাই, মাশরাফি ভাইয়ের খবর কি? তিনি কি প্রিমিয়ার লিগ খেলবেন?

সত্যিই ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’ এবারের প্রিমিয়ার লিগে অংশ নেবেন কি না, সেটাই এখন বড় প্রশ্ন। ভেতরের খবর, মাশরাফির প্রিমিয়ার লিগ খেলা নিয়ে আছে সংশয়। তিনি খেলবেন- জোর দিয়ে বলা যাচ্ছে না। মানে এটা পুরোপুরি নিশ্চিত নয়। আবার এবারের লিগে তার দেখা মিলবেই না- সেটাও জোর দিয়ে বলা যাচ্ছে না।

মাশরাফির দল শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহানও নিশ্চিত করে বলতে পারেননি। আজ বিকেলে জাগো নিউজের সাথে মাশরাফি ইস্যুতে কথা বলতে গিয়ে সোহান বলেন, ‘আসলে মাশরাফি ভাই খেলবেন কি খেলবেন না, তা নিশ্চিত করে বলতে পারছি না। কয়েকদিন পর জানাতে পারব তিনি আদৌ এ বছর খেলবেন কি না। তবে এখনকার খবর হলো, তিনি এখনও আমাদের দলের সাথে অনুশীলনে যোগ দেননি।’

সোহান যোগ করেন, ‘আমার সাথে কথা হয়েছে, তিনি হ্যাঁ কিংবা না পরিষ্কার করে কিছু বলেননি। শুধু জানিয়েছেন করোনা ও লকডাউনের ভেতর বেশি সময় নড়াইল ছিলেন। এখনও নড়াইলেই অবস্থান করছেন। ফিটনেস ট্রেনিং করেননি। তাই খেলা নিয়ে মাশরাফি ভাই নিজেও খানিক সংশয়ে।’

এদিকে এক নির্ভরযোগ্য সূত্রের খবর, মাশরাফি হয়তো প্রথম কয়েক রাউন্ড খেলবেন না। কোচ মোহাম্মদ রফিকের সাথে ওমন কথাই হয়েছে তার। কয়েক ম্যাচ পর দলের সাথে যোগ দিয়ে হয়তো লিগের মাঝামাঝি কিংবা তিন ভাগের এক ভাগ পরে শেখ জামাল ধানমন্ডি শিবিরে দেখা যেতে পারে দেশের ওয়ানডে ক্রিকেট ইতিহাসের সব সময়ের সফল ও সেরা অধিনায়ককে।

আসলে কী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মাশরাফি? জাগো নিউজের পক্ষ থেকে তার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here