ভারতে বিবাহসংক্রান্ত সমস্যার জেরে প্রতি বছর প্রায় ৯৮ হাজার পুরুষ আত্মহত্যা করেন। সংখ্যাটা নারীর তুলনায় তিনগুনেরও বেশি। দেশটিতে দায়ের হওয়া ধর্ষণ মামলার ৭১ দশমিক ছয় শতাংশই মিথ্যা। বউ নির্যাতনের মামলার ৮০ শতাংশই সাজানো, ভিত্তিহীন। আর এই তথ্যকে সামনে রেখে পুরুষ বাঁচাতে পথে নামলেন নারীরা। তাদের বক্তব্য, অনেক পুরুষ এই মিথ্যার জালে খুইয়েছেন সব। সম্মান, পরিবার এমনকী নিজের জীবন। কর্পোরেট জগতে যৌন নির্যাতনের মিথ্যা অপবাদে চাকরি হারিয়েছেন বহু পুরুষ।

ভারতের অল বেঙ্গল মেনস ফোরাম’র সভানেত্রী নন্দিনী ভট্টাচার্য জানান, ভারতে পক্ষাঘাতগ্রস্ত নব্বই বছরের বৃদ্ধের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির মামলা দায়ের করেছেন পূত্রবধূ! স্ট্রেচারে করে মৃত্যুপথযাত্রী বৃদ্ধকে আদালতে হাজিরা দিতে হচ্ছে। এমন ঘটনা অনেক আছে। অথচ পুরুষের হয়ে কেউ কথা বলে না। পশুপাখি, পরিবেশ রক্ষায় মন্ত্রণালয় আছে, অথচ পুরুষের সুরক্ষায় কোনো কমিশন নেই। তিনি বলেন, এই মিথ্যা মামলার জেরেই প্রকৃত নির্যাতিতার বিচার পাওয়া দুষ্কর হয়ে ওঠেছে।

নন্দিনীর প্রশ্ন, যখন কোনো নারী অপরাধ করেন, মিডিয়ায় তার মুখ ঝাপসা দেখানো হয়। তার পরিবারকে আড়াল করা হয়। কিন্তু পুরুষের ক্ষেত্রে অপরাধ প্রমাণ হওয়ার আগেই তার নাম, মুখ এবং পরিবারের বিস্তারিত বিবরণ সবাই জেনে যান। নারীর সম্মান আছে, পুরুষের নেই? তার সমাজ, সংসার নেই? যদি তিনি নিরপরাধ প্রমাণিত হন তবে তার সম্মানহানির দায় কে নেবে?

এদিকে, পুরুষ নির্যাতনের প্রতিবাদে গতকাল রবিবার দেশটির সল্টলেকের সেন্ট্রাল পার্ক থেকে নিউটাউনের ডিএলএফ মোড় পর্যন্ত বাইক র‌্যালি করেছে ফোরাম। ছিলেন দাবাড়ু দিব্যেন্দু বড়ুয়া, ডিসি ট্রাফিক জে মার্সি প্রমুখ। সঙ্গী হয়েছিল ‘অটোমোবাইল অ্যাসোসিয়েশন অব ইস্টার্ন ইন্ডিয়া’। আর আজ গড়িয়াহাট মোড়ের বুলেভার্ডে পুরুষ দিবস উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে ফোরাম। নাম ‘পুরুষ, তোমার জন্য’। নন্দিনী জানান, সোমবারের অনুষ্ঠান গান-কবিতা-আলোচনা সব পুরুষকে ঘিরে।

জানা যায়, ১৯ নভেম্বর আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস। এই উপলক্ষে পুরুষদের জন্য সপ্তাহব্যাপী বিশেষ ছাড়ের ব্যবস্থা করেছে ভারতের তিনটি প্রধান বেসরকারি হাসপাতাল। বেশ কয়েকটি বুটিক ও গয়নার দোকানও পুরুষদের ‘ছাড়’ দিচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here