পাবলিক পরীক্ষার সময় কমিয়ে আনার পরিকল্পনা করছে সরকার। তাই এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা ৩০-৩৫ দিনে শেষ করার কথা ভাবছে, শিক্ষা মন্ত্রণালয়। একই হারে কমবে অন্যান্য পাবলিক পরীক্ষার সময়ও। তবে এতে চাপ বাড়বে বলে অভিযোগ শিক্ষার্থীদের।

বছরে ৩৬৫ দিনে ক্লাস হয় মাত্র ১৩৮ দিন। অর্থাৎ বছরের অর্ধেকের বেশি সময় ক্লাসের বাইরে থাকেন শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষা পঞ্জিকার শুরুটা হয় বছরের প্রথম দিনে নতুন বই দিয়ে। কিন্তু সারা বছরে সেই বই পড়া বা অনুশীলনে কতটা সময় মেলে শিক্ষার্থীদের?

বছরে ৩৬৫ দিনের মধ্যে সরকারি ও নিজস্ব ছুটি মিলিয়ে স্কুল কলেজ বন্ধ থাকে ৮৫ দিন। তারসাথে ৫২টি শুক্রবার যোগ করলে ছুটি দাঁড়ায় ১৩৭ দিন। এর সাথে জেএসসি ১৫, এসএসসির ৩০ ও এইচএসসির ৪৫ দিন পরীক্ষা চলার সময় ধরলে সব মিলিয়ে কমবেশি দুশো দিন ক্লাস বন্ধ থাকে।

অর্থাৎ বছর জুড়ে ক্লাস হয় ১৬৫ দিনের মতো। আর যেসব প্রতিষ্ঠানে সপ্তাহে দুই দিন ছুটি থাকে তাদের ক্লাসের সংখ্যা কমে আরও বেশি।

শিক্ষার্থী ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চাপ কমাতে এরই মধ্যে কাজ শুরু করেছে মন্ত্রণালয়। কমিয়ে আনার পরিকল্পনা করছে পাবলিক পরীক্ষার সময়। নতুন সূচি অনুযায়ী জেএসসিতে ৫ দিন, এসএসসির ১০ এবং এইচএসসিতে ১৫ দিন পরীক্ষার সময় কমিয়ে আনবে সরকার।

শিক্ষার্থীদের চাপের কথা মাথায় রেখেই, সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের কথা জানিয়েছে আন্তঃবোর্ড সমন্বয় সাব কমিটি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here