নিউজিল্যান্ডে টাইগারদের সঙ্গে তিন সপ্তাহ কাজ করবেন ভেট্টোরি

তার সঙ্গে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) চুক্তিটা ভিন্নরকম। অন্য সব বিদেশি কোচরা পান মাসোহারা, মাস শেষে বেতন। আর ড্যানিয়েল ভেট্টোরির সাথে চুক্তি হচ্ছে কর্ম দিবসের। বছরে ১০০ দিন বাংলাদেশ দলের সঙ্গে কাজ করার কথা কিউই এই কোচের।

দিনের হিসেবে বেতন। ভেট্টোরির প্রতিদিনের বেতন ২ হাজার ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ১ লাখ ৬৯ হাজার টাকা! হ্যাঁ, চোখ কপালে ওঠার কিছু নেই। একদিনের বেতনই এত!

কিন্তু করোনার পর গত এক বছরে নিউজিল্যান্ডের এই স্পিন কোচকে পায়নি বিসিবি। মানে গত বছর করোনার ভয়াবহতা শুরুর পর থেকেই সাকিব, মিরাজ, তাইজুলরা ভেট্টোরির সাথে কাজ করতে পারেননি। কিউই কোচ যে বাংলাদেশেই আসেননি।

ভেট্টোরিকে না পেয়ে বিকল্প হিসেবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোম সিরিজে স্বদেশি সোহেল ইসলামকে দিয়ে ‘ঠেকা কাজ’ চালিয়েছে বিসিবি। এবারও কি তাই হবে? নিউজিল্যান্ড সফরে টাইগার দলের স্পিন বোলিং কোচের দায়িত্বে থাকবেন কে?

এ কৌতুহলী প্রশ্ন গত কদিন ধরেই ঘুরপাক খাচ্ছিল। অবশেষে আজ (বুধবার) বিকেলে মিলল জবাব। জানা হলো, নিউজিল্যান্ডের মাটিতে টিম বাংলাদেশের সাথে তিন সপ্তাহের মতো (২০-২২ দিন) কাজ করবেন ভেট্টোরি।

কোনো গুঞ্জন নয়। বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন আজ বিকেলে জানিয়েছেন এ তথ্য। বিসিবি সিইও বলেন, ‘সাবেক কিউই অধিনায়ক ও বিশ্বের অন্যতম সেরা বাঁহাতি স্পিনার ড্যানিয়েল ভেট্টোরির মত একজন বড়মানের ক্রিকেট ব্যক্তিত্ব দলের সাথে থাকা এবং ড্রেসিংরুম শেয়ার করাই অনেক কিছু। সর্বোপরি নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে তার দীর্ঘ অভিজ্ঞতা দলের জন্য বিরাট সহায়ক ভূমিকা রাখতে পারে। তাই ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রায় পুরো সময় ভেট্টোরি দলের সাথে কাজ করবেন।’

বিসিবির প্রধান নির্বাহী যোগ করেন, ‘বোর্ড মনে করে যে, ভেট্টোরির মত একজন কিংবদন্তি ক্রিকেটার বাংলাদেশ দলের সাথে থাকা কিংবা ড্রেসিংরুম শেয়ার করার আলাদা একটা গুরুত্ব আছে। সুতরাং বোর্ড যেটা করেছে, সবকিছু চিন্তাভাবনা করেই করেছে। দিনের হিসেবে উনি ২০-২২ দিন বাংলাদেশ দলের সাথে থাকবেন।’

ভেট্টোরি দলের স্পিন বোলিং কোচ, কিন্তু এতদিন কেন ছিলেন না? কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘ভেট্টোরি কিন্তু অনেকদিন ধরে বাংলাদেশ দলের সাথে সম্পৃক্ত আছেন এবং সার্ভিস দিচ্ছেন। কিন্তু করোনার কারণে হয়তো উনার মুভমেন্টে সমস্যা হচ্ছে। মূল বিষয় হল উনি বাংলাদেশ দলের সাথে যেখানেই যোগ দেন না কেন, দেশে ফিরে তাকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। এটা বিরাট এক ঝামেলা। তবে তিনি বাংলাদেশ দলের নিউজিল্যান্ড সফরেই যুক্ত হচ্ছেন।’

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here