দোকান খোলা রাখায় ভাঙচুর করল ছাত্রলীগ

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে দোকান খোলা রাখায় কুমিল্লার চান্দিনায় উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কাজী ইয়াসিন আহমেদ অভির নেতৃত্বে দোকানপাট ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে। আজ শুক্রবার সকালে চান্দিনা বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঈদের বেচাকেনা করার জন্য সকালে বাজারের ব্যবসায়ীরা নিজেদের দোকানপাট খোলে। এ খবর পেয়ে চান্দিনায় উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও বর্তমান সংসদ সদস্য অধ্যাপক আলী আশরাফের ভাতিজা কাজী ইয়াসিন আহমেদ অভি ও পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিব মাহমুদের নেতৃত্বে একদল নেতাকর্মী বাজারে আসে। তারা করোনা পরিস্থিতিতে দোকানপাট কেন খোলা রাখা হয়েছে-এমন অজুহাত এনে তারা ভাঙচুর শুরু করেন। বেশ কয়েকটি দোকান ভাঙচুর করে তারা চলে যান।

‘স্বপ্নপূরণ’ নামের একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক আবদুস ছালাম সুমন জানান, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি অভির নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা অতর্কিত হামলা চালায়। তারা ক্রিকেটের স্ট্যাম্প দিয়ে দোকানে গ্লাসের রেকগুলো ভেঙে ফেলে। এ ঘটনায় তার প্রায় ১ লাখ ২০ হাজার টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

চান্দিনা বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মো. এরশাদ আলী ভূঁইয়া বলেন, ‘ছাত্রলীগ সভাপতি অভি তাদের হুমকি দিয়ে বলেছেন, “যে দোকান খুলবে তার দোকানই ভাঙা হবে।” আমরা পুলিশকে বিষয়টি জানিয়েছি।’

এ বিষয়ে ছাত্রলীগ সভাপতি ইয়াসিন আহমেদ অভি বলেন, ‘প্রশাসনের নির্দেশনা অমান্য করে কাপড় ব্যবসায়ীরা দোকান খোলা রাখে। এতে প্রচুর ক্রেতা সমাগম হয়। এতে বাঁধা দেওয়ায় মালিকরা খারাপ আচরণ করেছে। তাই তার দোকানে ভাঙচুর করা হয়েছে। কিন্তু অন্যগুলো আমি বলতে পারব না।’

বিষয়টি নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্তকর্তা (ইউএনও) স্নেহাষীশ দাস বলেন, ‘বিষয়টি আমি ওসি সাহেবের কাছে জেনেছি। দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়ার পরও তারা (ব্যবসারীরা) খোলা রাখছে। তবে তারা (ছাত্রলীগ) এ অধিকার রাখে না, তাদের কেউ এ অধিকার দেয়নি। বিষয়টি দেখছি।’

ঘটনার পর এলাকা পরিদর্শন করেছেন জানিয়ে চান্দিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফয়সাল বলেন, ‘ছাত্রলীগের ছেলেরা দোকান বন্ধ রাখতে ব্যবসায়ীদের অনুরোধ জানাতে গিয়েছিল। তর্ক-বিতর্কের একপর্যায়ে কয়েকটি দোকানে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। অবশ্য ছাত্রলীগ এটা করতে পারে না।’ সূত্র: আমাদের সময়।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here