দুই ডোজ টিকার আগে পুরোপুরি নিরাপদ নয়

করোনাভাইরাসের টিকা নেয়ার কারণে কোভিড-১৯ শনাক্তকরণ পরীক্ষায় ”পজিটিভ” হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

অনেকের মধ্যে একটি বিভ্রান্তি রয়েছে কারণ, এই টিকা নেয়ার পরেও কারও কারও কোভিড-১৯ পজিটিভ শনাক্ত হচ্ছে।

সেই ভুল ভাঙ্গতে এক স্বাস্থ্য সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, করোনাভাইরাসের টিকা নেয়ার কারণে কারও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়া বা পজিটিভ শনাক্ত হওয়ার সুযোগ নেই। কিন্তু করোনাভাইরাসের দুইটি ডোজ শেষ হওয়ার পরেও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হতে আরো দুই সপ্তাহ সময় লাগে। সেই পর্যন্ত সতর্ক না থাকলে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থেকে যায়।

”চলমান কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রমে ব্যবহৃত কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ গ্রহণের ন্যূনতম ২ সপ্তাহ পর থেকে সর্বোচ্চ প্রতিরোধ সক্ষমতা তৈরি হয়,” বাংলাদেশের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে।

”তাই এই সময়ে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চললে কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যাবে।”

এই কারণে ভ্যাকসিন গ্রহণের পূর্বে ও পরেও মাস্ক ব্যবহারসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছে বাংলাদেশ স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

বাংলাদেশে শনিবার দুপুর পর্যন্ত ৩৫ লাখ ৮৪ হাজার ১৬৯ জন করোনাভাইরাসের টিকা নিয়েছেন। টিকা নেয়ার জন্য তালিকাভুক্ত হয়েছেন ৪৮ লাখ ৯৩ হাজার ৪৫৪ জন।

বাংলাদেশে অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার উদ্ভাবিত কোভিশিল্ড টিকা দেয়া হচ্ছে, যা উৎপাদন করছে ভারতের সিরাম ইন্সটিটিউট।

বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসের নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ৮৪০ জন। এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট আক্রান্ত হলেন ৫ লাখ ৪৯ হাজার ৭২৪ জন। প্রতি ১০০ জনের নমুনা পরীক্ষায় চারজন নতুন রোগী শনাক্ত হচ্ছে।

কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ১০ জনের। এ পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ৮ হাজার ৪৫৪ জনের।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here