ঢাবি প্রশাসনের শীর্ষ ব্যক্তিদের কুশপুত্তলিকা দাহ

ঢাবির আবাসিক হল বন্ধ রেখে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) প্রশাসনের শীর্ষ ব্যক্তিদের প্রতীকী কুশপুত্তলিকা দাহ করেছে প্রগতিশীল ছাত্রজোট। এছারাও তিন দফা দাবি পেশ করে তা আগামী ২৪ জানুয়ারির মধ্যে মেনে নেওয়ার দাবিও জানান তারা।

আজ মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) দুপুরে স্মৃতি চিরন্তন চত্বরে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

সেখানে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের শীর্ষ ব্যক্তি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল এবং প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রব্বানীর কুশপুত্তলিকা দাহ করেন সংগঠনের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার নেতাকর্মীরা।

কর্মসূচি শেষে তিন দফা দাবি পেশ করে তা আগামী ২৪ জানুয়ারির মধ্যে মেনে নেওয়ার দাবিও জানান তারা। দাবি আদায় না হলে আগামী ২৪ জানুয়ারি দুপুরে প্রগতিশীল ছাত্রজোটের ব্যানারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচির ঘোষণা করা হয়।

তাদের তিন দফা দাবিগুলো হলো,

স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষার্থীদের আবাসন নিশ্চিত করা, করোনাকালীন বেতন-ফি মওকুফ করা ও টিএসসির বর্তমান অবকাঠামো না ভাঙা।

সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সালমান সিদ্দিকী বলেন, ‘আবাসিক হল বন্ধ রেখে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত অগণতান্ত্রিক। কোনোভাবেই এটি ছাত্রবান্ধব সিদ্ধান্ত নয়। আমরা শুরু থেকে হল খুলে পরীক্ষা নেওয়ার দাবি জানিয়ে আসছি। কিন্তু দাবি আদায়ে প্রশাসনের কোনও পদক্ষেপ দেখছি না। আমাদের তিন দফা দাবি আগামী ২৪ জানুয়ারির মধ্যে না মেনে নিলে কঠোর কর্মসূচিতে যাবো।’

কর্মসূচিতে আরও উপস্থিত ছিলেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের ঢাবি সাধারণ সম্পাদক প্রগতি বর্মন তমা এবং ছাত্র ইউনিয়নের ঢাবি সভাপতি সাখাওয়াত ফাহাদ। আজকের সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন প্রগতিশীল ছাত্রজোট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সমন্বয়ক সোহেল আহাম্মেদ শুভ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here