ঢাকায় এসেও করোনার পরীক্ষা পাচ্ছেন না রাজশাহীর নার্স

কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল। ছবি: সংগৃহীত

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে স্বেচ্ছায় হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা রাজশাহীর নার্সের অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে ঢাকায় আনা হয়েছে। তবে আজ বুধবার দুপুর পর্যন্ত তাঁর করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করা হয়নি।

ওই নার্সের স্বামী বলেন, মঙ্গলবার রাতে তাঁর স্ত্রীকে ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। তবে এখানে করোনাভাইরাস শনাক্তকরণের পরীক্ষার কোনো ব্যবস্থা নেই।

করোনাভাইরাসে আক্রান্তের উপসর্গ নিয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একজন নার্স গত শনিবার থেকে হোম কোয়ারেন্টিনে ছিলেন। জ্বর, গলা ব্যথা, শ্বাসকষ্টের সঙ্গে আছে ডায়রিয়াও। এ ছাড়া তিনি ডায়াবেটিস ও লিভারের সমস্যায় আক্রান্ত।

হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা নার্সের অবস্থার অবনতি হওয়ায় এবং রাজশাহীতে তাঁর করোনা পরীক্ষার কোনো ব্যবস্থা না হওয়ায় তাঁকে ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। যোগাযোগ করা হলে তাঁর স্বামী বলেন, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একটি অ্যাম্বুলেন্সে তাঁরা গতকাল রাতে ঢাকায় পৌঁছান। রাজশাহী থেকে ঢাকায় এসেও স্ত্রীর করোনার পরীক্ষা করাতে না পেরে হতাশ তিনি। বললেন, কী লাভ হলো রাজশাহী থেকে ঢাকায় এসে?

ওই নার্সের স্বামী দাবি করেন, হাসপাতাল থেকে ৮–১০টি পরীক্ষা করতে দেওয়া হয়েছে। পরীক্ষাগুলো করাতে গেলেই বলা হচ্ছে, করোনাভাইরাস আছে কি না তা আগে পরীক্ষা করাতে হবে। হাসপাতালের লোকজন ১০ হাত দূরে থেকে তাদের সঙ্গে কথা বলছেন, যেন তাঁর স্ত্রী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গেছেন। সব মিলিয়ে বিপদের মধ্যে আছেন।

এই নার্স গত বৃহস্পতিবার থেকে জ্বর, সর্দি, কাশি ও শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হন। সেদিন ঢাকা থেকে ফেরার পথে ইতালিফেরত এক প্রবাসীর সহযাত্রীর পাশে বসে বাসে করে রাজশাহী গিয়েছিলেন তিনি। সেখান থেকে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারেন ভেবে এত দিন বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে ছিলেন তিনি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here