জ্বরে আক্রান্ত যুবকের মৃত্যু নিয়ে রহস্য

নোয়াখালীতে জ্বরে আক্রান্ত হয়ে এক যুবকের (২৩) মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) রাত সাড়ে আটটার দিকে নোয়াখালীর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান তিনি। তবে যুবকের মৃত্যু নিয়ে দেখা দিয়েছে রহস্য। ওই যুবকের বাড়ি বেগমগঞ্জ উপজেলায়।

বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি হারুনুর রশিদ জানান, আনুমানিক ২৩ বছর বয়সী ওই যুবক চৌমুহনীতে এক চিকিৎসকের চেম্বারে সহকারী হিসেবে কাজ করতেন। গত এক সপ্তাহ ধরে তিনি জ্বরে ভুগছিলেন। দুই দিন থেকে এক মেডিসিন বিশেষজ্ঞের ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী বাসায় তার চিকিৎসা চলছিল। বৃহস্পতিবার রাতে তার বমির সঙ্গে রক্ত যেতে থাকে। এরপর স্বজনরা তাকে অ্যাম্বুলেন্সযোগে জেলা সদরের ২৫০ শয্যা নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) সৈয়দ মহিউদ্দিন আবদুল আজিম বলেন, হাসপাতালে এক যুবককে আনার পর জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। সম্ভবত ওই তরুন হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

ওই যুবককে চিকিৎসা দেয়া চিকিৎসক জানান, গত মঙ্গলবার ওই যুবককে তার কাছে আনা হয়। তখন তাকে জানানো হয় ওই তরুণ ছয়-সাত দিন ধরে জ্বরে ভুগছিলেন। তিনি অবস্থা জানার পর প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেন। সন্ধ্যায় তার বমি হচ্ছে এবং সঙ্গে রক্ত যাচ্ছে জানানোর পর তিনি দ্রুত জেনারেল হাসপাতালে পাঠানোর পরামর্শ দেন।

এ ব্যপারে বেগমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. অসীম কুমার দাস জানান, বিষয়টি আইইডিসিআরকে জানানো হয়েছে। নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। ভবনটি হোম কোয়ারেন্টাইন ঘোষণা করে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here