জনসমাগম নিষিদ্ধ সত্ত্বেও আ. লীগ নেতার ‘সমাবেশ’

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দেশজুড়ে সব ধরনের জনসমাগম নিষিদ্ধ করেছে সরকার। এমন পরিস্থিতিতে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের শমসেরনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা মো. জুয়েল আহমেদ শতাধিক নারী চা শ্রমিকদের জড়ো করে সমাবেশ করেছেন। তাও আবার পুলিশের উপস্থিতিতে!

বুধবার (২৫ মার্চ) দুপুরে শমসেরনগর চা বাগানের ৩ নম্বর সেকশনে শতাধিক নারী চা শ্রমিকদের জড়ো করে সমাবেশের মাধ্যমে ডেটল সাবান বিতরণ করেন এবং বক্তব্য রাখেন। পরে ওই সাবান বিতরণের ছবি ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে।

ছবিতে ওই সমাবেশে শতাধিক নারী দেখা যাচ্ছে। তখন উপস্থিত ছিলেন পুলিশের এসআই শাহআলম, ইউপি সদস্য সীতারাম বিন ও ইউপি সদস্য ইয়াকুব আলী প্রমুখ। জনসমাগম নিষিদ্ধ সত্ত্বেও ইউপি চেয়ারম্যান মো. জুয়েল আহমেদের এমন কাণ্ডে অনেকেই বিরূপ মন্তব্য করেছেন।

তারা বলেন, নিরক্ষর চা শ্রমিকদের করোনার ঝুঁকি রয়েছে। তার মধ্যে তিনি জনপ্রতিনিধি হয়ে সরকারের নিদের্শ অমান্য করে সাবান বিতরণ ঠিক হয়নি। অনেকেই একে ‘অসচেতন কাণ্ড বলেও মন্তব্য করেছেন।

পুলিশের উপস্থিতিতে সমাবেশ করা প্রসঙ্গে শমসেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ অরুণ কুমার চৌধুরী বলেন, একটি সচেতনা সমাবেশ হচ্ছে জেনে পুলিশ সেখানে গিয়েছিল।

কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশেকুল হক বলেন, দেশজুড়ে সব ধরনের জনসমাগম নিষিদ্ধ করেছে সরকার, সেখানে যদি কোন জনপ্রতিনিধি সমাবেশ করতে পারেন না। বিষয়টি গুরুত্বসহকারে দেখছি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here