ছুরিকাঘাতে রাবির সাবেক শিক্ষার্থী নিহত, ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ

ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দর্শন বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী মোস্তাফিজুর রহমান নিহত হয়েছেন। তিনি বিভাগটির ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। তার বাড়ি রাজশাহীর দুর্গাপুরে। 

মোস্তাফিজ সাভারে গ্লোরিয়াস ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের চীফ এডমিনিস্ট্রেটিভ পদে চাকরি করতেন। সম্প্রতি তিনি রাজশাহীর বাঘায় তার গ্রামের বাড়ি বেড়াতে এসেছিলেন। ফেরার পথে আজ শনিবার সকাল ৭টায় আরিচা মহাসড়কে ছিনতাইকারীর কবলে পড়েন। পরে ছিনতাইকারীদের ছুরিকাঘাতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

এদিকে রক্তাক্ত লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ গিয়ে ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করে। লাশের পাশ থেকে সবজি ভর্তি একটি বস্তা, ব্যাংকের এটিএম কার্ড ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের একটি পরিচয়পত্র পাওয়া গেছে।

স্থানীয়দের ধারণা দূরপাল্লার বাস থেকে নামার পর ছিনতাইকারীর কবলে পড়েন ওই যুবক। তাদের ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে ওই যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যার পর কেড়ে নেয়া হয় তার সঙ্গে থাকা নগদ টাকাসহ মূল্যবান মালামাল।

মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে এই নৃশংস হত্যাকাণ্ড মেনে নিতে পারছে না বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে বিভিন্ন পোস্টের মাধ্যমে ততক্ষণাৎ প্রতিবাদ জানানোসহ ন্যায় বিচারের দাবিতে আজ বিকেল ৩ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে মানববন্ধন কর্মসূচি করেন বিশ্বিবদ্যালয় শিক্ষার্থীরা।

এসময় তারা, আগামী ২৪ ঘন্টা মধ্যে জড়িতদের গ্রেফতার করা, গ্রেফতার করে উপযুক্ত শাস্তি প্রদান করা ও নিহতের পরিবারকে ক্ষতিপূরন প্রদান করা সম্বলিত ৩ দফা দাবি পেশ করেছেন।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘আমরা আজ কোথায় নিরাপদ? শুধুমাত্র একজন শিক্ষার্থী হিসেবেই না আমরা একজন মানুষ হিসেবেও কোথাও নিরাপদ না। আমরা চারিদিকে একটা বিচারহীনতার সংস্কৃতিতে ডুবে আছি। যেসব জায়গায় প্রশাসনের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরনের দরকার সেসব জায়গায় নিরাপত্তা নিশ্চিতে প্রশাসন আজ ব্যর্থ।’ এসময় সঠিক সময়ে হত্যার সুষ্ঠু বিচার না পেলে আরো কঠোর কর্মসূচির ঘোষণা দেয়া হবে বলে জানান তারা।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here