এবার কাশিয়ানীতে চিকিৎসকের করোনা শনাক্ত, ক্লিনিক লকডাউন

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে একটি প্রাইভেট ক্লিনিকের ডাক্তারের করোনা পজেটিভ হওয়ায় ক্লিনিকের ওই ডাক্তার, স্টাফ ও রোগীসহ ৪১জনকে লকডাউন করা হয়েছে।

কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সাব্বির আহমেদ এই লকডাউন ঘোষণা করেন। আজ শুক্রবার দুপুরে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলা সদরের নিরাময় নার্সিং হোম এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে এই ঘটনা ঘটে।

কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী অফিসার সূত্রে জানা গেছে, ওই ক্লিনিক-এর মালিক ডা. আসলামুজ্জামান (কামাল) করোনা পরীক্ষার জন্য গত মঙ্গলবার(১৯মে) নমুনা দেন। বৃহস্পতিবার রাতে ওনার করোনা পজেটিভ রেজাল্ট আসে। পরীক্ষার জন্য নমুনা দেয়ার পরও ডা. আসলামুজ্জামান (কামাল) এক রোগীর সিজারিয়ান আপারেশন করেন। পরে স্বাস্থ বিভাগের পরামর্শ অনুযায়ী ক্লিনিকে অবস্থানরত রোগী, নবজাতক ও রোগীর আত্মীয় স্বজনসহ ২৯ জন ও ডাক্তার এবং ১১স্টাফসহ ক্লিনিকটিকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।
লকডাউনকৃত সকলের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে। এসময় কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. কাইয়ুম তালুকদার উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় গোপালগঞ্জে নতুন করে ৪জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে কাশিয়ানীতে ১ ডাক্তারসহ ৩জন এবং মুকসুদপুরে ১ জন।

এই নিয়ে জেলায় ১১৮ জন করোনায় আক্রান্ত হলেন। আক্রান্তদের মধ্যে ৪৯ জন সুস্থ হয়েছেন। বাকী ৬৭ জন জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে ও নিজ নিজ বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছেন। ১জন ঢাকায় চিকিৎসাধীন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here