করোনায় স্থগিত প্রাথমিকের শিক্ষক বদলি

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পরা করোনাভাইরাসের কারণে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকসহ সকল বদলি কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। গত ১৯ মার্চ থেকে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের (ডিপিই) বদলি কার্যক্রম স্থগিত রাখা হয়েছে। করোনা সংকট কেটে গেলে পুনরায় শিক্ষক বদলি শুরু করা হবে।

জানা গেছে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বদলি নীতিমালা অনুযায়ী জানুয়ারি থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত শিক্ষক বদলি কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে থাকে। অন্যান্য বছরের মতো এবারও যথা সময়ে সহকারী শিক্ষকদের বদলি আবেদন জমা নেয়া হলেও বর্তমান করোনাভাইরাসের কারণে সকল বদলি স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেয় ডিপিই। এ কারণে বদলিপ্রত্যাশী আবেদনকারী শিক্ষকরা অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েছেন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবারও বদলি কার্যক্রম শুরু করার দাবি জানান তারা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিপিই’র মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লাহ বুধবার (২৫ মার্চ) সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘করোনাভাইরাসের ভয়াবহ পরিস্থিতির কারণে বদলি কার্যক্রম স্থগিত রাখা হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পূণরায় এটি শুরু করা হবে। সময় বৃদ্ধি করে শিক্ষকদের বদলি করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতির মধ্যে আমরা সকলে আশঙ্কায় রয়েছি, এ কারণে বদলির চেয়ে আমাদের সুষ্ঠুভাবে বেঁচে থাকাটা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। এ সব বিষয় বিবেচনা করে গত ১৯ মার্চ থেকে শিক্ষক-কর্মকর্তাদের বদলি বন্ধ রাখা হয়েছে। তবে যারা বদলির জন্য আবেদন করেছেন, তাদের মধ্যে যারা যাচাই-বাছাইয়ে যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে সেসব শিক্ষকদের বদলি করা হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ইতিমধ্যে বেশ কিছু শিক্ষকদের আবেদন যাচাই-বাছাই করে চূড়ান্ত করে রাখা হয়েছে। বদলি কার্যক্রম শুরু হলে তাদের নির্দেশনা জারি করা হবে। তবে বদলি কার্যক্রম নিয়ে শিক্ষক-কর্মকর্তাদের মনোক্ষুণ্ণ ও হতাশ না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন মহাপরিচালক।’

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here