এবারও বিদেশিদের হজের অনুমতি না দেওয়ার পরিকল্পনা সৌদির

গতবারের মতো এ বছরও বিদেশ থেকে কাউকে হজের অনুমতি না দেওয়ার পরিকল্পনা করছে সৌদি আরব সরকার। বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের প্রকোপ আবারও বাড়ার পরিপ্রেক্ষিতে সৌদি কর্তৃপক্ষ এমন সিদ্ধান্তের কথা বিবেচনা করছে। সূত্রের বরাতে এ খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

সৌদি আরবের হজ সংশ্লিষ্ট দুটি সূত্র বুধবার বার্তা সংস্থাটিকে দেশটির সরকারের এমন পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন। মহামারির প্রকোপের সঙ্গে সীমিত পরিসরে হজ আয়োজনের কারণ হিসেবে দেশে দেশে করোনাভাইরাসের নতুন নতুন ধরনের প্রাদুর্ভাব শুরুর বিষয়টি নিয়ে ঝুঁকির কথাও জানিয়েছেন তারা।

সূত্র দুটি বলছে, সৌদি আরবের নাগরিক ও বাসিন্দাদের মধ্যে যারা করোনার টিকা নিয়েছেন কিংবা করোনায় আক্রান্ত হলেও হজের কমপক্ষে দুই মাস আগে সুস্থ হয়েছেন তাদের নিয়ে গতবারের মতো এবারও সীমিত পরিসরে হজ আয়োজনের পরিকল্পনা চলছে।

এবারের হজে বিদেশ থেকে কারও অংশগ্রহণের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার ব্যাপারে সৌদি আরব সরকারের মধ্যে আলোচনা চললেও বিষয়টি নিয়ে এখনো কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি বলেও জানিয়েছেন হজসংশ্লিষ্ট ওই দুই সূত্র।

করোনা মহামারির কারণে গত বছরও বিদেশি মুসল্লিদের অংশগ্রহণ ছাড়াই হজের আয়োজন করেছিল সৌদি কর্তৃপক্ষ। বিশ্বের বেশিরভাগ দেশে মহামারি করোনা সংক্রমণ বাড়ার কারণেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছিল দেশটি। এবারও একই রকম সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা বিবেচনা করছে দেশটি।

মহামারির আগে প্রতি বছর বিশ্বের নানান প্রান্ত থেকে ২৫ লাখের বেশি ধর্মপ্রাণ মুসলিম ইসলামের দুই পবিত্র স্থান মক্কা ও মদিনা পরিদর্শনের মাধ্যমে হজ আদায় করে থাকেন। এ ছাড়া বছরজুড়ে ওমরাহ হজ করেন অনেকে। এতে সৌদির আয় হয় প্রায় ১২ বিলিয়ন ডলার।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here