চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) একদিন কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকায় বেতন-ভাতা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে জাদুঘরের সিনিয়র এসিস্ট্যান্ট মাসুদ ফরহানের। মাত্র একদিন কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকায় কোনো চাকরিজীবির বেতন-ভাতা বন্ধ করে দেয়ার নজির এ বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম।

মাসুদ ফরহান মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হওয়ায় এ বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় জুড়ে চলছে সমালোচনা। মাসুদ ফরহানের বেতন-ভাতা বন্ধ করে দিয়ে দেয়া চিঠিতে উল্লেখ রয়েছে, বদলি আদেশ না মানায় তার বেতন-ভাতা বন্ধ করে দেয়া হয়। কিন্তু বৃহস্পতিবার দুপুরে বদলি আদেশটি জারি করা হয়। শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটির পরদিন রোববার তিনি যোগদান করতে পারেননি।

এ বিষয়ে মাসুদ ফরহান জানান, ‘বৃহস্পতিবার মেরুদণ্ডে ব্যথার কারণে ছুটি নিয়ে সকালে আমি বাসায় চলে আসি। অসুস্থতার কারণে রোববার জাদুঘর থেকে রসায়ন বিভাগে বদলিজনিত যোগদান করা সম্ভব হয়নি। সোমবার খবর পাই আমার বেতন-ভাতা বন্ধ করে দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।’ আমার বিরুদ্ধে কেন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে নোটিশও দিয়েছে। একদিন অনুপস্থিত থাকার জন্য এত বড় শাস্তির নজির অতীতে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে নেই। একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে আমি আজ অসহায়।

তিনি আরো জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। তিনি যদি জানতেন আমি মুক্তিযোদ্ধার সন্তান তাহলে এসব সিদ্ধান্ত তিনি নিতে দিতেন না। তাঁকে ভুল বুঝিয়ে এই ষড়যন্ত্র করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) নুর আহমদের মোবাইলে যোগাযোগ করা হলেও সম্ভব হয়নি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here