উচ্চ শিক্ষায় বছরে ৬০ হাজার শিক্ষার্থী বিদেশে পাড়ি জমাচ্ছে

স্কুল পর্যায়ে ১০ লাখ শিক্ষার্থী দেশের বাইরে পড়াশোনা করছে। আর উচ্চ শিক্ষায় বছরে ৬০ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী বিদেশে যাচ্ছে। শিক্ষা নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন গবেষণা সংস্থার জরিপে এসব তথ্য উঠে এসেছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মানসম্মত প্রতিষ্ঠান অপর্যাপ্ত হওয়ায় শিক্ষার্থীদের দেশের বাইরে পড়তে যাওয়ার সংখ্যা বাড়ছে।

দেশে ইংরেজি মাধ্যম স্কুল আছে ৩ শর মত। আর বেসরকারি স্কুল কলেজ আছে ৩৬ হাজার। এর বাইরে আছে সরকারি স্কুল কলেজ। আর বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আছে শতাধিক। এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অর্ধেক আসন প্রতি বছরই খালি থাকে।

অথচ প্রতিবছর স্কুল পর্যায়ে গড়ে ২০ হাজার শিক্ষার্থী দেশের বাইরে পড়তে যাচ্ছে। আর উচ্চ শিক্ষার জন্য যাচ্ছে গড়ে ৬০ হাজার শিক্ষার্থী। এর ফলে একদিকে দেশের অর্থ অন্যদেশে চলে যাচ্ছে। আর পড়াশোনা করে বেশিরভাগ শিক্ষার্থীই দেশে ফিরছে না। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের মতে বেশিরভাগ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় মানসম্মত পড়াশোনা নিশ্চিত করতে না পারার কারনেই এই অবস্থা হচ্ছে।

স্কুল পর্যায়ে বিদেশে পড়তে যাওয়ার অন্যতম কারন হিসেবে সংশ্লিষ্টরা বলছেন দেশে আবাসিক সুবিধা সম্মিলিত ইংরেজি মাধ্যম স্কুল না থাকা। এছাড়া সামর্থ্য অনুযায়ী অনেকেই বিদেশি কারিকুলামে সরাসরি পড়তে চায়। ভাল বিদেশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শাখা ক্যাম্পাস দেশে চালু হলে বিদেশ যাওয়ার সংখ্যা অনেকটাই কমবে।

শিক্ষাবিদরা বলছেন, প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা না বাড়িয়ে মনিটরিং এর মাধ্যমে এক মানে নিয়ে আসতে হবে।

বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের পড়তে যাওয়া পছন্দের দেশগুলোর মধ্যে শীর্ষে মালয়েশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, জার্মানি,কানাডা ও ভারত।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here