ঈদ উৎসবের ছিটেফোঁটাও নেই বানভাসি মানুষের

উৎসব মানে যদিও আনন্দ, তবে তার ছিটেফোটাও যে নেই বানভাসি মানুষের। বন্যায় বেচে থাকাটাই যেখানে কষ্টের, সেখানে আনন্দের উদযাপন হবে কি করে!

সিরাজগঞ্জের বন্যায় পানিবন্দি মানুষের জীবনও যেনো এমন ভাগ্যের ঘেরাটোপেই।

থৈ থৈ পানি পেরিয়ে গন্তব্য শরীয়তপুরের নড়িয়ার নশাসন ইউনিয়ন। ডুবে থাকা একটি ঘরে আটকে যায়। নৌকায় করে সেই বাড়িতে গিয়ে জানা হলো বানভাসিদের দুঃখের কথা।

জলমগ্ন ঘরে ইট দিয়ে উঁচু করা খাটে চার সন্তান নিয়ে কোনোভাবে টিকে আছে কৃষক আরমানের পরিবার। ঈদের দিনে একটু মাংস রান্নার আশায় মসলা বাটছেন গৃহকর্ত্রী।

অন্যের জমিতে কাজ করে সন্তানদের পড়ালেখার খরচ জোগানো আরমান তিন মাস ধরে বেকার। ঈদ তার কাছে হতাশায় পরিপূর্ণ।

বানভাসি কৃষক আরমান বলেন, ‘ঈদের আনন্দে কিছু কিনবারও পারি নাই। তিনমাস ধরে কাজ নেই। খুশি বলে কিছু নেই।’ এমনই দুর্বিষহ পানিবন্দী অবস্থা অন্তত পাঁচ লাখ মানুষের।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here