ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ এবং সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা।

রোববার সকাল ১০টায় শাখা ছাত্রলীগের দুই শতাধিক নেতাকর্মী বিক্ষোভ মিছিল করেন। পরে দলীয় টেন্টে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে সভাপতি-সম্পাদককে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন তারা।

জানা যায়, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ কুষ্টিয়া যাচ্ছিলেন। তাকে অভিনন্দন জানাতে সকাল ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে অবস্থান নেন ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা।

পরে হানিফকে বিদায় দিয়ে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করেন তারা। মিছিলে ‘চল্লিশ লাখের কমিটি মানি না, মানব না’, ‘পকেট কমিটি মানি না, মানব না, ‘টাকায় কেনা কমিটি মানি না, মানব না’ নানা স্লোগান দেন নেতাকর্মীরা।

মিছিলের নেতৃত্ব দেন ছাত্রলীগ নেতা তৌকির মাহফুজ মাসুদ, শিশির ইসলাম বাবু, মিজানুর রহমান লালন, ফয়সাল সিদ্দিকী আরাফাত। মিছিল থেকে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদককে ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে বিভিন্ন স্লোগান দেন নেতাকর্মীরা।

এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় কমিটির নতুন সভাপতি-সম্পাদকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে নেতারা বলেন, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কমিটি বিপুল পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে কিনে আনা হয়েছে। অর্থবাণিজ্যের অডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এতে ইবি ছাত্রলীগের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হচ্ছে।

বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় এ বিষয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। ছাত্রলীগের একটি গুরুত্বপূর্ণ শাখা ইবি। আমরা আশা করি, কেন্দ্রীয় কমিটি অতিদ্রুত ইবির কমিটি বাতিল ঘোষণা করে ছাত্রলীগ কর্মীদের আস্থাভাজন নেতা নির্বাচন করবেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here