আসিফ তালুকদারের বিরুদ্ধে অভিযোগ: যা ঘটেছিলো সেদিন

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাহিত্য সম্পাদক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ’র (ডাকসু) সংস্কৃতি সম্পাদক আসিফ তালুকদারের বিরুদ্ধে যুবলীগ নেতার সাথে হাতাহাতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। তিনি রাজধানীর ৪নং ইউনিট যুবলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী রানা শ্রাবণ। গত শুক্রবার রাতে রাজধানীর হাতিরপুল কাঁচাবাজারের সামনে এ ঘটনা ঘটলেও সোমবার ভিডিও প্রকাশের সাথে বিষয়টি জানাজানি হয় এবং গণমাধ্যমে তা প্রকাশ পায়।

জানা যায়, শুক্রবার রাতে হাতিরপুল কাঁচাবাজারের অপর পাশে তাদের ব্যাক্তিগত বিষয় নিয়ে কথা বলছিলেন সুজন, রানাসহ আরও দুইজন। এর মধ্যে ওবায়দুল আলম সুজন ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফেরদৌস আলমের ছেলে। তাদের পাশেই একটি দোকানের সামনে আসিফ ও তার বন্ধু দাঁড়িয়ে ছিলেন এবং তার বন্ধুর স্ত্রী কেনাকাটা করছিলো। এ সময় বসে থাকা তিন যুবকের মধ্যে উচ্চবাক্য বিনিময় হচ্ছিল। এক পর্যায়ে একজন আরেকজনের উদ্দেশ্যে তেড়ে যায়। এ সময় আসিফ তাদের সংবরণ করার চেষ্টা করে এবং তাদেরকে শান্ত হতে অনুরোধ করে । এতে তারা উত্তেজিত হয়ে আসিফে বলে “তুই কে?”। এক পর্যায়ে কথা কাটা-কাটি হলে দুই পক্ষই উত্তেজিত হয়ে ওঠে ও দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে ।

এ ব্যাপারে আওয়ামীলীগ নেতা ওবায়দুল আলম সুজন বলেন, ওই ঘটনায় কেউ আহত হয় নি। এরকম ঘটনা ঘটলে আমরা পদক্ষেপ নিতাম। আমরা তাকে জিজ্ঞেস করেছি আপনি কে? এটা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়েছে। আমাদের বা হাতিরপুলের ছেলেদের সাথে আসিফ বা তার ছেলেদের কোন গ্যাঞ্জাম হয়নি।যতটুকুই বাক বিতর্ক হয়েছে, আমরা বসে তা মিউচুয়াল করেছি। অসিফ বুঝতে পেরেছে আমি এলাকার বড় ভাই তাই সে আমাদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছে।

তিনি আরও বলেন, এখানে তাপস ভাইকে (নব নির্বাচিত মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস) নিয়ে কোন কথা হয়নি।

আসিফ মদ্যপ ছিলেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি যতক্ষণ উপস্থিত ছিলাম, সে মদ্যপ অবস্থায় ছিলো কি না বা সেরকম আচরণ আমি দেখিনাই। এখানে তৃতীয়পক্ষ রাজনৈতিক ফায়দা নেয়ার সুযোগ নিচ্ছে।

এ ব্যাপারে অসিফ তালুকদার স্টুডেন্ট জার্নালকে জানান, আমার এক বন্ধু ও বন্ধুর স্ত্রীকে নিয়ে হেটে যাচ্ছিলাম সেখান দিয়ে। পাশেই দেখি তিনজন যুবক কথা কাটাকাটি করছে এবং একে অপরের দিকে তেড়ে যাচ্ছে। তখন আমি গিয়ে থামানোর চেষ্টা করছি মাত্র। এ সময় তারা রাগান্বিত অবস্থায় থাকার কারনে তাদের সাথে আমার ভুল বোঝাবুজি হয় । বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে আমি যে গ্রহনযোগ্যতা অর্জন করেছি তা নষ্ট করার জন্য ঘটনার ভূল ব্যাখ্যা করা হচ্ছে ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here