আশুলিয়ায় চলন্ত বাসে তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, আটক ৬

সাভারের আশুলিয়ায় চলন্ত বাসে এক তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে ৬ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ওই বাসটিও জব্দ করা হয়েছে। শনিবার গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আশুলিয়ার থানার ওসি (তদন্ত) জিয়াউল হক।

এর আগে শুক্রবার (২৮ মে) দিবাগত রাত পৌনে ১২টার দিকে আশুলিয়া-সিঅ্যান্ডবি বাইপাস সড়কের আশুলিয়া গরুর হাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, আশুলিয়ার ছোট বাজার এলাকা থেকে একটি মিনি বাসে করে নিজ গন্তব্যে যাচ্ছিলেন ওই তরুণী। পথে মধ্যে ফাঁকা রাস্তায় তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে ওই ৬ ব্যক্তি। পরে মিনি বাসটি জাহাঙ্গীরনগরের বিশমাইলের দিকে যাওয়ার সময় পুলিশ চেকপোস্টে থামানোর সংকেত দেয়। সেখানে বাসটি থামার পরই পুলিশ সদস্যরা ৬ ব্যক্তিকে তরুণীকে গণধর্ষণের অভিযোগে আটক করে। এসময় বাসটিও জব্দ করে থানা নিয়ে যাওয়া হয়।

আশুলিয়া থানার ওসি (তদন্ত) বলেন, ভুক্তভোগী তরুণী বোনের বাড়ি মানিকগঞ্জ থেকে নিজ বাসা নারায়ণগঞ্জের চাষাড়া এলাকায় যাচ্ছিলেন। পরে সকল যাত্রীকে গন্তব্যে যাওয়ার আগেই নামিয়ে দেন বাসের চালক-হেলপার। তারা ভুক্তভোগীকে জোরপূর্বক বাসে করে নবীনগর নিয়ে আসেন। এ সময় বাসের জানালা-দরজা বন্ধ করে ভুক্তভোগী তরুণীকে দলবেঁধে ধর্ষণ করে বাসের চালক, হেলপারসহ ৬ জন। এ ঘটনায় পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ওই তরুণীকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানোর হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here