মানহীনতার কারণে প্রথম ধাপে ৫২ পণ্য নিষিদ্ধের পর এবার আরও ২২ পণ্য নিষিদ্ধ করলো জাতীয় মান নির্ধারণকারী সংস্থা বিএসটিআই।

আজ মঙ্গলবার এক বিজ্ঞপ্তিতে এ সব পণ্য বাজার থেকে সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিএসটিআই বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে বাজার থেকে ওই ২২ পণ্য তুলে নিতে কোম্পানিগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বাজার থেকে সংগ্রহ করা ৪০৬টি পণ্যের মধ্যে দ্বিতীয় ধাপে বাকি ৯৩টি পণ্যের মান পরীক্ষা  করা হয়।

যে ২২টি পণ্য নিষিদ্ধ-

প্রাণ ডেইরির প্রাণ প্রিমিয়াম ব্র্যান্ডের ঘি, স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজের রাঁধুনী ব্র্যান্ডের ধনিয়া গুঁড়া ও জিরার গুঁড়া, হাসেম ফুডসের কুলসন ব্র্যান্ডের লাচ্ছা সেমাই, এস এ সল্টের মুসকান ব্র্যান্ডের আয়োডিনযুক্ত লবণ, চট্টগ্রামের যমুনা কেমিক্যাল ওয়ার্কসের এ-৭ ব্র্যান্ডের ঘি, চট্টগ্রামের কুইন কাউ ফুড প্রোডাক্টসের গ্রিন মাউন্টেন ব্র্যান্ডের বাটার অয়েল, চট্টগ্রামের কনফিডেন্স সল্টের কনফিডেন্স ব্র্যান্ডের আয়োডিনযুক্ত লবণ, ঝালকাঠির জে কে ফুড প্রোডাক্টের মদিনা ব্র্যান্ডের লাচ্ছা সেমাই, চাঁদপুরের বিসমিল্লাহ সল্ট ফ্যাক্টরির উট ব্র্যান্ডের আয়োডিনযুক্ত লবণ এবং চাঁদপুরের জনতা সল্ট মিলসের নজরুল ব্র্যান্ডের আয়োডিনযুক্ত লবণ।

এ ছাড়া থ্রি স্টার ফ্লাওয়ার মিলের থ্রি স্টার ব্র্যান্ডের হলুদের গুঁড়া এবং এগ্রো অর্গানিকের খুশবু ব্র্যান্ডের ঘি নিম্নমানের হওয়ায় কোম্পানি দুটির লাইসেন্স বাতিল করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here