বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের হত্যার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে টানা তৃতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষার্থীরা।

আজ বুধবার ‘দিল্লি না ঢাকা, ঢাকা ঢাকা’ , ‘দালালী না রাজপথ, রাজপথ রাজপথ’, ‘আমার নদী ফিরায়ে দে, নইলে গদি ছাইড়া দে’, ‘আমার বন্দর ফিরায়ে দে, নইলে গদি ছাইড়া দে’, ‘ক্যাম্পাসে লাশ কেন, শেখ হাসনিা জবাব দাও’ , ‘আবরার শহীদ কেন, প্রশাসন জাবাব দাও’ প্রভৃতি স্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে শিক্ষার্থীরা। মিছিলে দুই শতাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।

দুপুর সাড়ে বারোটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু হয়। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে বিশ্ব বিদ্যালয়েরপ্রধান ফটক সংলগ্ন ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে অবস্থান করে।

ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে বিক্ষোভ শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ অধ্যয়ন বিভাগের শিক্ষার্থী জয়নাল আবেদিন শিশির বলেন, ‘দেশের জন্য কথা বলতে গিয়ে আমাদের ভাই আবরার শহীদ হয়েছে। তাকে নির্মমভাবে খুন করা হয়েছে।’ এসময় তিনি আবরারকে দেশবিরোধী চক্রান্তের প্রথম শহীদ হিসেবে ঘোষণা দেন। তিনি আরও বলেন, আজকে অবরারের জায়গায় আমি, আপনি কিংবা অন্য কেউ শহীদ হতে পারতাম। তাই দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র রুখে দিতে আমাদের সবাইকে প্রস্তুত থাকতে হবে।’

এসময় তিনি দেশবিরোধী সকল চুক্তি বাতিল সহ আবরার হত্যার খুনিদের বিচার দাবিতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here