পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদের ছোট ভাই আবরার ফায়াজ ও তার ফুফাতো ভাইয়ের স্ত্রী তমা আহত হয়েছেন। বুধবার (৯ অক্টোবর) দুপুরে বুয়েটের ভিসি অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম আবরারের গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়ার রায় গ্রামে গেলে এলাকাবাসীর বিক্ষোভের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।
এর প্রেক্ষিতে আবরার ফায়াজ ফেসবুকে দেয়া এক স্ট্যাটাসে লেখেন, আজকে Additional SP (উনি বলেন উনার নাম মোস্তাফিজুর রহমান) কোথা থেকে সাহস পায় আমার গায়ে হাত দেয়ার? আমার ভাবিকে মারছে? নারীদের গায়ে নিষ্ঠুরভাবে হাত দেয়? এই চাটুকারদের কি বিচার হবে না? তিনি কালকে ২মিনিটে জানাজা শেষ করতে বলেন কিভাবে? যেই ছাত্রলীগ মারল তারা কেন সর্বত্র?
তিনি আরও লেখেন, আমার বাবাকে হুমকি দেয়া হয়েছে, আপনার আর এক ছেলে ঢাকা থাকে আপনি কি চান তার ক্ষতি হোক…গ্রাম এ বলা হয়েছে কেউ কিছু করলে ১ সপ্তাহ পর গ্রামের সব পুরুষ জেলে থাকবে। বিচার চাই, আমি বিচার চাই…নয়তো আমাকে মেরে ফেলুন বাবা মা কষ্ট একবারে পাবে।
ফায়াজ ও তার ভাবিকে মারধরের ঘটনার বিষয়ে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এসএম তানভির আরাফাত বলেন, আমরা কাউকে আঘাত করিনি। শুধুমাত্র এলাকায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে সবাইকে শান্ত করার চেষ্টা করেছি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here