আজ পবিত্র হজ

আরাফাতের ময়দানে আজ ধ্বনিত হবে ‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক, লাব্বাইকা লা শারিকা লাকা লাব্বাইক, ইন্নাল হাম্দা ওয়ান নি’মাতা লাকা ওয়াল মুল্ক, লা শারিকা লাক’। অর্থাৎ আমি হাজির, হে আল্লাহ আমি হাজির, তোমার কোনো শরিক নেই, সব প্রশংসা ও নিয়ামত শুধু তোমারই, সব সাম্রাজ্যও তোমার।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) রাতে মুজদালিফায় অবস্থান করে শুক্রবার মিনায় ফিরে কোরবানির মধ্য দিয়ে শেষ হবে হজের আনুষ্ঠানিকতা।

ফজরের নামাজ শেষে মিনায় অবস্থানরত মুসল্লিদের গন্তব্য সেটাই। জোহরের ওয়াক্তের আগেই সেখানে পৌঁছে যেতে হবে। দিনভর আরাফাত প্রান্তরে অবস্থান করে মসজিদে নামিরাহ থেকে দেয়া খুৎবা শুনবেন তারা। এবার বাংলাসহ ১০ ভাষাতে অনূদিত হবে খুতবা। পরে জোহর ও আসরের নামাজ একই ইমামের পেছনে আদায় করা হবে। ধনী-গরিব ভেদাভেদ থাকে না যেখানে। সবার পরনে একই সেলাইবিহীন কাপড়, কণ্ঠে এক সৃষ্টিকর্তার শ্রেষ্ঠত্ববাদ।

প্রায় ১৪০০ বছর আগে এ ময়দানেই মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা) লক্ষাধিক সাহাবিকে সামনে রেখে ঐতিহাসিক বিদায় হজের ভাষণ দেন।

সূর্যাস্তের সঙ্গে সঙ্গে মিনায় ফেরার পথে মুজদালিফায় রাতে অবস্থান নেবেন হাজিরা। খোলা আকাশের নিচে মাগরিব ও এশার নামাজ একসঙ্গে আদায় করবেন। মিনায় জামারাতে শয়তানের প্রতিকৃতিতে নিক্ষেপের জন্য এখান থেকেই পাথর সংগ্রহের নিয়ম।

তবে এবার আগেই হাজীদের জীবাণুমুক্ত পাথর সরবরাহ করা হয়েছে। রাতে সেখানে অবস্থানের পর ১০ জিলহজ শুক্রবার ফজরের নামাজ শেষে সূর্যাস্তের আগেই মিনার দিকে রওনা হবেন। শুক্রবার সৌদি আরবে ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে। মিনায় গিয়ে জামারাতে বড় শয়তানকে কঙ্কর নিক্ষেপ ও কোরবানি করা হবে।

এদিকে বুধবার রাতে হজ উপলক্ষে প্রতি বছরের মতো পরিবর্তন করা হয় পবিত্র কাবা শরীফের গিলাফ। নানা আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে ফিরে এসে হাজীরা স্বর্ণখচিত পবিত্র কুরআনের আয়াত সংবলিত নতুন গিলাফে সজ্জিত পবিত্র কাবা শরীফ দেখতে পাবেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here