গৃহহীন এক ব্যক্তির সাথে মজা করার শাস্তি হিসেবে চীনা বংশোদ্ভুত স্পেনের এক ইউটিউবারকে কারাদণ্ড দিয়েছে বারসেলোনার একটি আদালত। শুক্রবার আদালতের রায়ে গৃহহীন ব্যক্তিটিকে ২০ হাজার ইউরো দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয় ।

অন্যকে বোকা বানিয়ে এই অমানবিক মজা করার শাস্তি হিসেবে স্প্যানিশ ইউটিউবার কাংগহুয়া রেনকে শাস্তি হিসেবে ১৫ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে বার্সেলোনার আদালত বলে সাউথ চায়না মরনিং পোষ্ট জানায়। ২০১৭ সালের জানুয়ারি মাসে রেনের ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশিত ভিডিওটির বিরুদ্ধে নৈতিক স্খলনের অভিযোগ আনা হয়। ভিডিওটিতে দেখা যায় ওরিও বিস্কুটের ভেতরে টুথপেস্ট ভরে তা খেতে দিয়েছিলেন একজন গৃহহীনকে।

রেনের ওই প্র্যাংককে ‘নৈতিক আচরণ লঙ্ঘন’ হিসেবে দেখেছে আদালত। রায়ে ইউটিউবসহ অন্য সব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আগামী ৫ বছর তার চ্যানেলগুলো বন্ধ রাখার আদেশ দেয়া হয়েছে অর্থাৎ ২০২৪ সাল পর্যন্ত আর কোনো ভিডিও  ইউটিউবে পোস্ট করতে পারবেন না রেন।

২০১৪ সাল থেকে ইউটিউবে ‘রিসেট’ নামে নিজের চ্যানেল খুলে ভিডিও আপলোড করে আসছেন রেন। এখন তার চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার ২ লাখ ৬৩ হাজার। আর এই কয়েক বছরে চ্যানেলটি দেখা হয়েছে ১১ কোটি ১৭ লাখ ৪৭ হাজার ৫৬৮ বার।

নিজের ধারণ করা ওই ভিডিওতে ক্যামেরার সামনে ওরিও বিস্কুটের ভেতরের ক্রিম ফেলে দিয়ে তাতে টুথপেস্ট মাখিয়ে নেন রেন। পরে একটি শপিং মলের বাইরে এক দুস্থ ব্যক্তিকে এই বিস্কুট খেতে দেন তিনি। আর ৫০ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি বিস্কুট খাওয়ার পরপরই বমি করতে থাকেন। ইউটিউবে এই ভিডিও প্রকাশের পর তোপের ‍মুখে পড়েন রেন।

এরপর আগের ভিডিওটি সরিয়ে আরেকটি ভিডিও পোস্ট করেন তিনি যাতে দেখা যায়, তিনি ওই ব্যক্তিটির সঙ্গে দেখা করে তাকে ২০ ইউরো দিচ্ছেন। রেন আত্মপক্ষ সমর্থনে আদালতে বলেন, এই ভিডিওটি একটি বাজে ধরনের মজা ছিল, যা  তিনি পরে সংশোধন করতে চেয়েছেন।

সাজার রায় হলেও এখনই কারাগারে যেতে হচ্ছে না রেনকে। স্পেনের আইন অনুযায়ী, সহিংস অপরাধ না হলে প্রথমবার অপরাধের জন্য সাজা স্থগিত থাকবে। তবে একই ধরনের কাজ আবার করলে নেয়া হবে কারাগারে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here