বাবা সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেনের গার্ড। তিনি খুলনা থেকে ট্রেন নিয়ে যাচ্ছিলেন চিলাহাটি। আর ছেলে পার্বতীপুর থেকে ট্রেনের জুনিয়র ট্রন টিকেট এক্সামিনার (টিটিই)। ছেলে দিনাজপুর থেকে পার্বতীপুর হয়ে ট্রেন নিয়ে যাচ্ছিলেন রাজধানী অভিমুখে। কিন্তু পথেই ডিউটিরত অবস্থায় দেখা হয়ে গেল বাবার সঙ্গে।

তবে এই দেখার সঙ্গে আর দশটা ‘দেখা’র পার্থক্য রয়েছে। ট্রেন যখন ফুলবাড়ি রেল স্টেশন অতিক্রম করছিল তখন বাবা ট্রেনের শেষদিকে গার্ডরুমে আর ছেলে ওয়াসিবুর রহমান শুভ তখন দ্রুতযান এক্সপ্রেসের ইঞ্জিনের কাছাকাছি একটি কামরায়। বাবার সাথে চলন্ত অবস্থায় এমন দেখায় হলো খুবই স্বল্প সময়ের কুশল, আর সেই সময়টাকে কাজে লাগিয়ে ছেলে মোবাইলে বাবাকে কেন্দ্রে রেখে তুলে ফেলেন সেলফি। আর এই মুহূর্তটি অনন্য হয়ে যায়।

ছবিটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করলে এমন মুহূর্তকে নেটিজেনরা মহাভাগ্যের হিসেবে অভিহিত করেন। খায়রুল ইসলাম নামের একজনের মন্তব্য, ‘এমন পিতা পুত্র হওয়া সৌভাগ্যের!’ স্বপন আমান নামের একজন লিখেছেন, ‘আমাদের কপালে হয়তো এমন ছবি নেওয়ার সৌভাগ্য হবে না, তবে সুন্দর হয়েছে ছবিটা।’

ছেলে ছবির ক্যাপশনে লিখেছেন,

বাবা এবং আমি, ফুলবাড়ি স্টেশনে ক্রসিং চিলাহাটিগামী সীমান্ত এবং ঢাকাগামী দ্রুত্যযান।।।
বাবা=অন ডিউটি ওয়ার্কিং গার্ড ।
আমি= অন ডিউটি জুঃটিটিই ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here